বিষণ্ণতা, মনমরাভাব দূর করবো কী করে?

কারো সাথে কথা বলতে গেলে মন থেকে কোনো কথা আসে না। শুধু যোগাযোগের এর ক্ষেত্রেই নয়, প্রতি ক্ষেত্রেই এই সমস্যা। প্রফুল্লতা আনার অনেক চেষ্টা করি। কখনো আসে, কখনো আসে না। না আসার পাল্লাটাই ভারি। তাও বেশিক্ষণ স্থায়ি হয় না। তবে কয়েকদিন স্কুল করেছিলাম। টানা ৬ ঘন্টা একটানা স্কুল করার পর ভালই স্বাভাবিক লাগত, কিছুটা প্রফুল্ল লাগত। কিন্তু ঘুমানোর পর অর্থাৎ পরের দিন সকালে আবার সেই বিষন্নতা, মনমরা ভাব। মুলত যখন পুরোপুরিভাবে কোন কারণে অতিষ্ঠ হয়ে যাই তারপর কিছুসময় ভাল কাটে। ঘুমানোর পর থেকেই যত সমস্যা শুরু হয়। এর একটা সমাধান দিন।
Add Comment
1 Answer(s)

আপনি কি কাজ করেন না কি পড়েন না কি আপাতত বাসাতে থাকেন, বয়স কত, কবে থেকে বিষণ্নতা এগুলো কিছুই উল্লেখ করেন নি।উল্লেখ করলে বিষয়টা বোঝা সহজ হতো। যাই হোক আপাতদৃষ্টিতে মনে হচ্ছে কোনো কষ্টকর অভিজ্ঞতা হয়তো আপনার অবচেতন মনে প্রভাব ফেলেছে যেখান থেকে বিষন্নতার সৃষ্টি। সেটা কি- পারিবারিক, ব্যক্তিগত না কি পড়াশোনা/কর্মজনিত সেটা জানি না। তবে এখন আপনার যেটা করণীয় সব ভুলে সামনের দিকে এগোনো। মন খারাপ করে বসে থাকলে হবে না। কিছু একটা করুন। পড়াশোনা শেষ না হলে সেটা করুন, কোন কোর্স করুন। কিংবা কোথাও চাকরির চেষ্টা করুন। প্রাইভেট পড়ান কিংবা অনলাইনে আয় করুন। মোট কথা ব্যস্ত থাকুন। কিছু একটাতে ইনভলভড থাকুন, যা ভালো লাগে আপনার তাতেই। পছন্দের কাজ করুন।নিজের কোনো সৃজনশীল দিক থাকলে কাজে লাগান। কাজের মধ্যে থাকলে আস্তে আস্তে সব ঠিক হয়ে যাবে। এছাড়া মেডিটেশন করতে পারেন/ কোন সাইক্রিয়াটিস্টের কাছ থেকে বিষন্নতা নিয়ে পরামর্শ নিতে পারেন। আর ঘুম ভালো না হলে ঘুম থেকে উঠে বিষন্নতা/ মন মেজাজ খারাপ হওয়া এমন কিছু অস্বাভাবিক নয়। এসবকে পাত্তা না দিয়ে নিজেকে ব্যস্ত রাখুন। আপনি নিজে যদি ভালো থাকতে চান তাহলে পৃথিবীর কোন মন খারাপের ক্ষমতা নেই আপনাকে অসুখী করার।

পরামর্শ দিয়েছেন :
অথই নীলিমা
প্রভাষক
পদার্থবিজ্ঞান বিভাগ
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

Professor Answered on October 12, 2015.
Add Comment

Your Answer

By posting your answer, you agree to the privacy policy and terms of service.

  • RELATED QUESTIONS

  • POPULAR QUESTIONS

  • LATEST QUESTIONS